অল গুড কিংবা অল ব্যাড বলতে কি কিছু আছে?

দুনিয়াতে অল গুড বলে কিছু একটা আছে। কিন্তু অল ব্যাড কিছু নাই।

যেমন, আদর্শ। সেটা যেই আদর্শই হোক না কেন। আদর্শকে মানুষ সাধারণত ‘অল গুড’ বলে মনে করে। তাই তো সেটাকে সে ‘আদর্শ’ হিসাবে গ্রহণ করে। মজার ব্যাপার হলো, যেগুলোর আদর্শ হওয়ার দাবীকে সে অস্বীকার করে, অর্থাৎ আদর্শ হিসাবে যেসব ‘আদর্শ’কে সে বাতিল করে সেগুলোর মধ্যে তার পছন্দের আদর্শের অনেকখানিই থাকে। দুনিয়াতে ‘অল ব্যাড’ বলে কিছু নাই। সবচেয়ে খারাপ কিছুর মধ্যেও বেশ খানিকটা ভালো অংশ থাকে।

এই কথার মানে হতে পারে বিভিন্ন রকম। যেমন, (১) যাকে আমি বাতিল করছি সেও খানিকটা শ্রদ্ধা ও কৃতিত্ব পেতে পারে। বা পাওয়া উচিত। এর ফলে আমি ‘অপরের’ প্রতি অধিকতর সহনশীল হবো।

(২) এ কথার মানে এটাও বটে, সত্য হলো সর্বাংশ সত্য। খানিকটা সত্য, আদৌ সত্য নয়। কোনো কথার মাঝে কিছুটা সত্যতা থাকাটা কোনো ব্যাপার নয়। কথাটা আগাগোড়া কনসিসটেন্ট হলো কিনা, সেটাই গুরুত্বপূর্ণ।

ফেসবুকে এই পোস্টে Shafik Monzu জানতে চেয়েছেন: শয়তান কি অল ব্যাড নাকি তারও ভালো কিছু আছে?

আমার জবাব: আছে। যেমন, শয়তান কখনোই নাস্তিক ছিলো না। সে আল্লাহর একটা হুকুম মানতে অস্বীকার করেছিলো। এক্ষেত্রে সে ভুল যুক্তি দ্বারা চালিত ছিলে। আদম (আ.) সঠিক যুক্তিধারা দ্বারা পরিচালিত ছিলো। যদিও তিনিও ভুল করেছিলেন।

লেখাটির ফেসবুক লিংক

আপনার মন্তব্য লিখুন

* চিহ্নিত ঘরগুলো পূরণ করা আবশ্যক। আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।