মানবীয় চিন্তার ঐশ্বরিক ক্ষমতা

মানুষ জগতের অংশ। অত্যন্ত ক্ষুদ্র, একেবারে তুচ্ছ। জগতের বিশালত্ব ও সামগ্রিকতার তুলনায়। সেই মানুষ জগত সম্পর্কে নির্দ্বিধায় মন্তব্য করে। বলে, জগতের সৃষ্টিকর্তা আছে, জগতের সৃষ্টিকর্তা নাই, জগত অসীম বা জগত সসীম। জগত এভাবে হয়েছে, ওভাবে হয় নাই। ইত্যাদি। আস্তিক, নাস্তিক বা সংশয়বাদী যা-ই হোন না কেন, তিনি দাবী করেন, তিনি জগত সম্পর্কে জানেন। যেটা বা… বাকিটুকু পড়ুন মানবীয় চিন্তার ঐশ্বরিক ক্ষমতা

BIV, বিশ্বাস, প্রমাণ ও যুক্তির চক্রক ‘দোষ’ নির্ণয়

প্রশ্ন:একটা এলাকার সব গলি, সব বাড়ি, সব দোকান, সব মানুষ একই রকম দেখতে। তাদের মাঝে কেউ কেউ পরিচিত। তারা কই? তাদের চেহারা কেমন? উত্তর: পুরাই প্যাঁচ লাগানো কথা। পরাবাস্তববাদী, রিফাত হাসানের ভাষায়, গেরিলা কথাবার্তা ….! যাহোক, আমাদের জ্ঞান-গরিমা সব ঠিক-ঠাক থাকার জন্য, আমরা envated নই, একথাটা ঠিক হওয়া ভীষণ জরুরী। সমস্যা হলো, ‘প্রমাণ’ মাত্রই এই… বাকিটুকু পড়ুন BIV, বিশ্বাস, প্রমাণ ও যুক্তির চক্রক ‘দোষ’ নির্ণয়

মত, পথ, তত্ত্ব ও দর্শন: রীতিমতো উল্টাপাল্টা বিদঘুটে কিছু ব্যাপার-স্যাপার…

এক ছাত্রের প্রশ্ন: প্রমাণ না থাকা সত্ত্বেও আমরা কোনকিছু সত্য বলে বিশ্বাস করি কেন? উত্তর: কারণ, “প্রমাণে”র কোনো প্রমাণ নাই। যাচাইকরণ প্রক্রিয়ার যে কোনো কিছুতে আমরা শেষ পর্যন্ত অসীমতা, বৃত্তাবদ্ধতা কিংবা স্ববিরোধ – এই তিন অবস্থার কোনো না কোনো অবস্থাকে মেনে নিতে বাধ্য হই। এই “ঝামেলা” সম্পর্কে আমরা সচেতন থাকি বা না থাকি। এটি হলো… বাকিটুকু পড়ুন মত, পথ, তত্ত্ব ও দর্শন: রীতিমতো উল্টাপাল্টা বিদঘুটে কিছু ব্যাপার-স্যাপার…