শূন্য নিয়ে গত পরশু ১৪ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে দর্শন বিভাগ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে একটা সেমিনার দিয়েছি। অপর্যাপ্ত সময়সহ নানা ধরনের সীমাবদ্ধতার জন্য সেখানে বক্তব্যটি ভালোভাবে উপস্থাপন করা সম্ভব হয় নাই। এ কারণে শূন্যের নাথিং বা সামথিং হওয়া নিয়ে আমি যা বলতে চেয়েছি তা নতুন করে এখানে উপস্থাপন করেছি। কোনো কিছু ভুল মনে করলে বা কোনো প্রশ্ন থাকলে নির্দ্বিধায় তা বলবেন, এই অনুরোধ রইলো। তার আগে পুরো বক্তব্যটি মনোযোগ দিয়ে শুনবেন, এটি আশা করি।

[সেমিনার হ্যান্ডআউট (পিডিএফ)]

এই আলোচনাটিতে যেসব বিষয় নিয়ে কথা বলা হয়েছে:

১ম পর্ব: নাইঅর্থে শূন্যের ব্যবহার

 

২য় পর্ব: কিছু একটাঅর্থে শূন্যের ব্যবহার

 

৩য় পর্ব: অংকের ফলাফলের সাথে কোনো অস্তিত্বের সত্তাগত অনিবার্যতার পার্থক্য

 

৪র্থ পর্ব: শূন্যের কাছাকাছি হওয়া বনাম শূন্য হওয়া

 

৫ম পর্ব: বিনিময় বিধি ও মূল্য-প্রতিস্থাপন নীতির গাণিতিক প্রয়োগ

 

৬ষ্ঠ পর্ব: বিজ্ঞানের মিথ্যাত্ব প্রতিপাদন নীতি ও গাণিতিক প্রমাণ

 

৭ম পর্ব: শূন্যতার সাথে অসীমতা ও বিন্দুর সাদৃশ্য-বৈসাদৃশ্য

 

৮ম পর্ব: সংখ্যা রেখার অবস্তুগত বা ধারণাগত বাস্তবতা

 

৯ম পর্ব: সাম্য-অবস্থা, প্রতিসমতা ও সমন্বয় অর্থে শুন্য-এর ব্যবহার

 

১০ম পর্ব: শূন্যের বিপরীত গুণীতক থাকা না থাকা

 

১১তম পর্ব: গণিতের মধ্যে ব্যক্তিকেন্দ্রিকতা ও বস্তুনিষ্ঠতা

 

১২তম পর্ব: শূন্য নিয়ে আলোচনার কতিপয় দার্শনিক তাৎপর্য

 

সব পর্ব নিয়ে সম্পূর্ণ আলোচনাটির ভিডিও:

লেখাটির ফেইসবুক লিংক